করলার পুষ্টিগুণ

লিখেছেন .

তারিখ .July 27, 2016.... বিভাগ. .পুষ্টিগুনে কৃষি

করলায় রয়েছে অসাধারণ পুষ্টিগুন। প্রতি ১০০ গ্রাম করলা বা উচ্ছের মধ্যে ৯২.২ গ্রাম জলীয় অংশ,২.৫ গ্রাম আমিষ,৪.৩ গ্রাম শর্করা,১৪ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১.৮ মিলিগ্রাম আয়রণ, ১৪৫০ মাইক্রোগ্রাম ক্যারোটিন,০.০৪ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি১, ০.০২ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি২, ০.৯ গ্রাম অন্যান্য খনিজ পদার্থ ও ২৮ ক্যালরি খাদ্যশক্তি আছে।
.
করলার উপকারিতা–
১. নিয়মিত তিতা করলা খেলে আপনি পাবেন নানান রকমের রোগ বালাই থেকে মুক্তি। আরোও পাবেন প্রচুর পুষ্টি উপাদান যা শরীরের জন্য প্রয়োজনীয়।
২. করলা রক্তকে পরিশুদ্ধ করে তোলে। করলা কারন করলায় প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকায় রক্তে হিমোগ্লোবিন তৈরি করতে সাহায্য করে। রক্তবাহিত নানা সমস্যা যেমন স্ক্যাবিজ, রিং ওয়র্ম-এর সমস্যায় করলা অত্যন্ত উপকারী।
৩. করলা একধরনের এনজাইম বৃদ্ধি করে শরীরের কোষগুলোর চিনি গ্রহণের ক্ষমতা এবং শরীরের কোষের ভিতর গ্লুকোজের বিপাক ক্রিয়াও বাড়িয়ে দেয়। এর ফলে রক্তের চিনির পরিমাণ কমে যায়। এ কারনে ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত করলার রস খেলে অনেক উপকার পাবেন।


৪. করলায় আছে প্রচুর পরিমানে বিটা ক্যারোটিন বা ভিটামিন এ। যা দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে।
৫. নিয়মিত করলা খাওয়ার অভ্যাস করে আপনি সর্দি,কাশি, মৌসুমী জ্বর ও অন্যান্য ছোটখাটো সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।
৬. করলার ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি এন্টি অক্সিডেন্ট; বার্ধক্য ঠেকিয়ে রাখে, শরীরের কোষগুলোকে রক্ষা করে।
৭. করলা রক্তের চর্বি কমায়।
৮.উচ্চ রক্তচাপ কমাতে করলা করলা উপকারী।
৯. করলা ক্রিমিনাশক হিসাবে করলা কাজ করে।
১০. ভাইরাস নাশক হিসাবে করলা হিপাটাইটিস এ, হারপিস ভাইরাস, ফ্লু, ইত্যাদির বিরুদ্ধেও বেশ কার্যকর ভুমিকা রাখে।
১১. গবেষকদের মত করলা লিভার ক্যান্সার, লিউকেমিয়া, মেলানোমা ইত্যাদি প্রতিরোধ করে।
১২. করলা কোষ্ঠ কাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে।
১৩. করলা পাতার রস শরীর থেকে অতিরিক্ত টক্সিন বের করতে সাহায্য করে করে।
১৪. করলায় আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যা ত্বক ও চুল ভালো রাখার জন্য একান্ত প্রয়োজনীয়
১৫. ম্যালেরিয়া জ্বরে ও মাথা ব্যথায়ও করলা অনেক উপকারী।

Tags:

1076 Views

♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦◊♦

Leave a Reply

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা পুরোপুরি বা আংশিক নকল করে অন্য কোথাও প্রকাশ/প্রিন্ট করা সম্পূর্ণ বেআইনি। তবে অব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে কোন প্রকার অনুমুতি ছাড়াই কন্টেনসমূহ ব্যবহার করা যাবে। সূত্রসহ সম্পূর্ণ লেখা অন্য কোথাও প্রকাশ করা যাবে।

Designed & Developed by Alamgir Hossain

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.